• সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০২৩ ||

  • অগ্রহায়ণ ২৬ ১৪৩০

  • || ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

আর্থিক অবস্থা ও মানসিক স্বাচ্ছন্দ্য

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০২৩  

আর্থিক অবস্থা ও মানসিক স্বাচ্ছন্দ্য                                    
ঋণ ও আর্থিক সমস্যা মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে। যার যত বেশি ঋণ, তার তত বেশি সমস্যা। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হতে পারে এবং এটি প্রকৃত সত্য।

যেভাবে আর্থিক সুস্থতা মানসিক স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করে

মানসিক স্বাস্থ্য ও আর্থিক সচ্ছলতার মধ্যে বড় যোগসূত্র রয়েছে। গবেষকরা দেখেছেন, আর্থিক সমস্যার কারণে মানসিক চাপ দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে। তারা আরো দেখেছেন যে আর্থিক সমস্যাগুলোই বেশিরভাগ মানুষের জন্য চাপের সবচেয়ে বড় কারণ। এমনকি রাজনীতি, পরিবার ও কাজের চাপের চেয়েও আর্থিক চাপের প্রভাব অনেক বেশি।

আর্থিক সচ্ছলতা এবং এ বিষয়ে যার জ্ঞান যত কম তার চাপও তত বেশি বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। জীবনের অন্যান্য চাপের মতোই, এই সংক্রান্ত চাপ মানুষকে উদ্বিগ্ন, বিষণ্ণ ও ব্যাকুল করতে পারে।

গবেষণায় দেখা গেছে আগে থেকেই মানসিক সমস্যা ছিল এ ধরনের লোকেদের জীবনে আর্থিক চাপ বাড়তি মাত্রা যুক্ত করেছে। তাদের মানসিক স্বাস্থ্যকে আরও খারাপ করেছে। একইভাবে আরেকটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, বেশিরভাগ লোকের ক্ষেত্রেই মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি আর্থিক সচ্ছলতার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। মানসিক স্বাস্থ্য এবং আর্থিক সচ্ছলতা এক চক্রে একসাথে কাজ করে। একটি ভালো না হলে অন্যটির ওপর প্রভাব পড়ে। বিশেষজ্ঞরা দেখেছেন যে, গুরুতর আর্থিক সমস্যায় থাকা লোকেরা আত্মহত্যার কথা চিন্তা করে তিনগুণ বেশি।

যেভাবে আর্থিক সচ্ছলতা বাড়াতে পারেন

বিশেষজ্ঞদের মতে আর্থিক অবস্থার উন্নতির জন্য কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা গুরুত্বপূর্ণ।

খরচের মাত্রা ও খাতের দিকে লক্ষ রাখা
একজন ব্যক্তির তার জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে খরচের খাতের দিকে নজর দেওয়া উচিত। সেইসঙ্গে সঞ্চয়ের অভ্যাস গড়ে তোলা অত্যন্ত কার্যকরী পদক্ষেপ। বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতির সঙ্গে খরচের মাত্রা তুলনা করা উচিত। তাহলে  বোঝা যাবে আয়ের সঙ্গে ব্যয়ের খাপ খাওয়ানোর প্রবণতা ঠিক কতটুকু। এর মধ্য থেকে কিছু খরচ বাদ দেওয়ার চেষ্টা করা উচিত, যেগুলো দৈনন্দিন জীবনে চলার জন্য বাঞ্ছনীয় নয়।

পরামর্শ গ্রহণ
আর্থিক সচ্ছলতা বা ভালো থাকার বিষয়ে অনেক ভালো ভালো পরামর্শ, বই, লেকচার কিংবা বিশেষজ্ঞ রয়েছে। অভিজ্ঞ ও বিশ্বস্ত কারো থেকে পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে প্রয়োজন হলে।

বাজেট তৈরি
খরচসংক্রান্ত বিষয় নিয়ন্ত্রণ করার জন্য নিজের প্রয়োজনের ভিত্তিতে বাজেট তৈরি করা খুবই কার্যকরী উপায়। এটি নিয়মিত মেনে চলতে পারলে খরচ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –