ব্রেকিং:
করোনায় আক্রান্ত হয়ে রংপুর বিভাগের কুড়িগ্রামে আরো একজনের মৃত্যু। রংপুর নগরীতে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জীবাণুনাশক স্প্রে করছে সিটি কর্পোরেশন।
  • বৃহস্পতিবার   ১৫ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২ ১৪২৮

  • || ০২ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
রংপুর নগরীর শাপলা চত্বর এলাকায় র‌্যাব-১৩ এর উদ্যোগে করোনা সংক্রমণ রোধে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চলছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলায় সারাদেশে দ্বিতীয় দিনের মতো সর্বাত্মক লকডাউন চলছে। প্রবাসী কর্মীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করছে সরকার বসুন্ধরার হাসপাতাল ‘উধাও’ হয়নি, বণ্টন হয়েছে- স্বাস্থ্যের ডিজি রংপুরসহ দেশের তিন বিভাগ ও দুই জেলার একাধিক স্থানে কালবৈশাখী ঝড়ের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সর্বাত্মক লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও রংপুরে রাস্তার মোড়ে মোড়ে বসেছে পুলিশের চেকপোস্ট।

গংগাচড়ায় জমি নিয়ে বিরোধে ৩ জন নিহত, আহত ১০ জন

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২১  

জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রংপুরের গংগাচড়া উপজেলায় দুই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যের মধ্যে সংঘর্ষে ২ জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতে ভর্তি করা হয়েছে।
অপরদিকে রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

গঙ্গাচড়া মডেল থানার ওসি সুশান্ত কুমার সরকার জানান, গঙ্গচড়া উপজেলার নোহালী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আজিজুল ইসলামের সঙ্গে একই ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য সাইফুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে মঙ্গলবার দুপুরে উভয়ের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

এতে সাবেক ইউপি সদস্য সাইফুলের বড় ভাই রিয়াজুল ঘটনাস্থলে মারা যায়। পরে আজিজুল ইসলামকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার সময় পথে মারা যান। এতে আহত হন উভয়পক্ষের ১০ জন। তাদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আমেনা, হেলাল, সেরাজুল, অজিপা, আবুল কালামকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

নোহালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম টিটুল বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে দুইপক্ষের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এর আগেও তাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। আমি কয়েকবার সালিশ করেছি। কিন্তু সালিশের রায় কেউ মানেনি। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

অপরদিকে, রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়াল কুঠি এলাকা থেকে মঙ্গলবার দুপুরে হাত পা বাঁধা অবস্থায় তারা মিয়া নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

মৃতের বড় ভাই সাইফুল ইসলাম জানান, তার ভাইকে একই গ্রামের চান্দেরপুকুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বুলু মাস্টারসহ কয়েকজন তাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। মরদেহের পকেট থেকে কয়েকজনের নাম উল্লেখসহ একটি চিরকুট উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

হাড়িয়ারকুঠি ইউপি চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ বাবুল জানান, ময়নাতদন্ত হলে জানা আসল ঘটনা জানা যাবে।

তারাগঞ্জ থানার ওসি ফারুক হোসেন জানান, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত যুবকের বাড়ি উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের কোরানীপাড়া গ্রামে। তার বাবার নাম মনছুর আলী।

হত্যা ও লাশ উদ্ধারের ঘটনায় গংগাচড়া ও তরাগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট থানার ওসিরা জানান।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –