• বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

চার মাসের শিশু সন্তাকে গলাটিপে হত‍্যা করলো বাবা

প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২৩  

নীলফামারী সদরে নিজ সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে জাকারিয়া শেখ নামের বৃদ্ধকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোরে সদর উপজেলার দক্ষিণ হাড়োয়া ফকিরগঞ্জ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

গ্রেফতার জাকারিয়া শেখ চড়াইখোলা পশ্চিম কুচিয়ার মোড় শেখপাড়া এলাকার মৃত ওমর আলী শেখের ছেলে। তিনি উত্তর সোনাখুলি কামিল মাদরাসা শিক্ষকতা (প্রভাষক) করতেন।

জানা যায়, ৯ বছর আগে জাকারিয়া ইসলামের সঙেগ্ বিয়ে হয় তার দ্বিতীয় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মমতার। চার মাস আগে ইয়াহিয়া শেখ আপন নামের একটি ছেলে সন্তান হয় তাদের। বিয়ের কিছুদিন পর কাজী মারা যাওয়ায় সে সময় কাবিননামা তোলা হয়নি তাদের। গত কয়েকদিন ধরে সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে কাবিন নামার জন্য স্বামী জাকারিয়াকে চাপ দেন আয়শা।তবে এ  সন্তান তার নয় বলে অস্বীকার করেন জাকারিয়া। এ নিয়ে পারিবারিক কোলাহল ছিল তাদের। গত শুক্রবার ভোরে রাতে  ৪ মাসের ওই সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে জাকারিয়া। হত্যার পর নিজেই ভয়ে হত্যা করিনি বলে চিৎকার করলে টের পান আয়েশা সিদ্দিকা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে গ্রেফতার করে তাকে।

জাকারিয়ার স্ত্রী আশেয়া সিদ্দিকা মমতা বলেন, সংসারের সম্পত্তি ভাগ না দিতে  তার নিজ সন্তানকে অস্বীকার করতেছে। আগের পরিবারের  সন্তানদের  কিছু জমি জায়গা দিয়েছে। কাজী মারা যাওয়ায় কাবিননামা নেই। তার যদি কিছু হয় তাহলে আমার সন্তানের কি হবে ভেবে আমি কাবিন চাইলাম। কিন্তু সেই কাবিনের জন্য সে আমার বাচ্ছাটাকে মারি ফেলাইলো। কাবিন চাওয়ায় আমার কাল হলো। আমি তার বিচার চাই।

নীলফামারী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিরুল ইসলাম বলেন, দ্বিতীয় বিয়ের দীর্ঘদিন পর সন্তান হওয়ায় সন্তানকে অস্বীকার ও স্বীকৃতি দেওয়া নিয়ে পারিবারিক ঝামেলা ছিল। গতরাতে চার মাসের শিশুকে হত্যা করেন জাকারিয়া। ঘটনার পরপরই আমরা তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –