• বুধবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৮

  • || ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
রাস্তায় নেমে গাড়ি ভাঙচুর ছাত্রদের কাজ নয়: প্রধানমন্ত্রী সব মানুষের ডিজিটাল নিরাপত্তার জন্যই আইন: তথ্যমন্ত্রী আখাউড়া-আগরতলা রেল রুট পুনরায় চালুর ওপর গুরুত্বারোপ জানাজা শেষ করেই পাকিস্তানি বাহিনীকে ধাওয়া করি দেশে আসতে প্রবাসীদের জন্য নতুন নির্দেশনা

জিহ্বা পরিষ্কার করার ৫ উপকার 

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০২১  

নিঃসন্দেহে মুখে দুর্গন্ধের অন্যতম কারণ হল অপরিষ্কার জিহ্বা। প্রতিদিন সকালে দাঁত ব্রাশ করার সময় অনেকেই জিহ্বা পরিষ্কার করেন। কিন্তু অনেকে আছেন দীর্ঘদিনেও জিহ্বা পরিষ্কার করেন না। কিন্তু দাঁত ব্রাশ করার মতো জিহ্বা ব্রাশ করাও গুরুত্বপূর্ণ।

খাবারের বাড়তি অংশ, মৃত কোষ এবং ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াকে কাছে ঘেঁষতে দিতে না চাইলে নিয়মিত জিভ পরিষ্কার করতে হবে। নিয়মিত পরিষ্কার করলে সার্বিকভাবে আপনার স্বাস্থ্যও ভালো থাকে। পাঁচটি উপকারের কথা জানুন–

ব্যাকটেরিয়া থাকে না
জিভ পরিষ্কারের ফলে মুখের ভেতরের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া শেষ হয়ে যায়। তার ফলে দাঁতের সমস্যা কম হয়। মুখ থেকে দুর্গন্ধ ছাড়ে না।

খাবারের স্বাদ ভালো থাকে
দিনে দুবার জিভ পরিষ্কার করলে খাবারের ভালো স্বাদ পাবেন। জিভ পরিষ্কারের ফলে মৃত কোষ এবং অন্যান্য অপ্রয়োজনীয় উপাদান সাফ হয়ে যায়। তার ফলে মিষ্টি, তেঁতো, টকের স্বাদ আরও ভালোভাবে পাবেন।

হজম ভালো হয়
সহজ মুখ থেকেই শুরু হয় খাবার হজমের প্রক্রিয়া। স্যালাইভায় যে এনজাইমগুলি থাকে, তা খাবারকে ভেঙে দিয়ে পাচন প্রক্রিয়া সহজ করে তোলে। নিয়মিত জিভ পরিষ্কার করলে প্রয়োজনীয় এনজাইমগুলি সক্রিয় থাকে।

অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সক্রিয় রাখা 
রাতভর আপনার মুখের মধ্যে যে ক্ষতিকারক পদার্থ জমা হয়, তা সকালে উঠেই পরিষ্কার করতে হয়। সেটা করলে আপনার অভ্যন্তরীণ অঙ্গ সক্রিয় হয়ে ওঠে। সকালে ঘুম থেকে উঠে চাঙ্গা লাগে।

রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায়
বৃদ্ধি নিয়মিত জিভ পরিষ্কার করলে আপনার মুখে ব্যাকটেরিয়া বা অন্যান্য অপ্রয়োজনীয় উপাদান জমে যায় না। মুখ ভালো থাকে। যা শরীরে রোগ প্রতিরোধকারী শক্তির পক্ষে ভালো।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –