• শনিবার ২৫ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

নবাবগঞ্জে প্রতারণা অভিযোগে স্বামী-স্ত্রী আটক

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে সমাজসেবা অফিসের কর্মচারী পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে স্বামী-স্ত্রীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলার শাল্টিমুরাদপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে হাবিবুর রহমান (৩৪) ও তার স্ত্রী নাহিদা আফরোজ (২৫)। 

অভিযুক্তরা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে নিজেদের সমাজসেবা অফিসের কর্মচারী পরিচয় দিয়ে প্রতিবন্ধী কার্ড, বয়স্ক-বিধবা ভাতা, গর্ভবতী ও মাতৃত্ব কালীন ভাতা, টিসিবি কার্ড করিয়ে দেওয়ার কথা বলে গ্রামের সহজ সরল লোকজনের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ঐ দুই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে নবাবগঞ্জ থানায় একটি প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন।

নবাবগঞ্জ থানার ওসি তাওহীদুল ইসলাম বলেন, গত রবিবার সন্ধ্যায় প্রতারক স্বামী-স্ত্রী  উপজেলার দাউদপুর এলাকায় হাসিনা বেগম নামক এক নারীর কাছ থেকে ভাতা করিয়ে দেওয়ার কথা বলে ৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে অভিযুক্ত স্বামী-স্ত্রীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এ সময় তারা প্রতারণা কথা স্বীকার করে। পরে স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যানের থানায় সংবাদ দিলে থানা পুলিশ তাদেরকে আটক করে। এ ঘটনায় সোমবার থানায় একটি প্রতারণার মামলা হয়েছে এবং প্রতারকদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।  

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শুভ্র প্রকাশ চক্রবর্তী বলেন, সর্তকতামূলক প্রচারণা করার পরেও ঐ অভিযুক্তরা দীর্ঘদিন ধরে কৌশলে নিজেদের পরিচয় গোপন করে সমাজসেবা অফিসের কর্মচারীর ভুয়া পরিচয় দিয়ে প্রতিবন্ধী কার্ড, বয়স্ক- বিধবা ভাতা, গর্ভবতী ও মাতৃত্ব কালীন ভাতা, টিসিবি কার্ড করিয়ে দেয়ার কথা বলে গ্রামের সহজ সরল লোকজনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল। এ বিষয়ে তিনি বাদী হয়ে নবাবগঞ্জ থানায় একটি প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন। 

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –