• শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২১ ১৪২৭

  • || ২২ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
করোনা মোকাবিলায় সফল তিন সরকারপ্রধানের একজন শেখ হাসিনা বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে: পাটমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী ‘আকাশতরী’ ও ‘শ্বেতবলাকা’ উদ্বোধন করবেন ১৪ মার্চ উলিপুরে নকশিকাঁথা তৈরি করছেন নারীরা দীর্ঘদিন পর আবারও হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে শুরু হয়েছে শজনে আমদানি

নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সদস্য হচ্ছে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

উদীয়মান পাঁচটি বড় অর্থনীতির দেশ ব্রিকস জোটের নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এনডিবি) সদস্য হচ্ছে বাংলাদেশ। ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার নামের আদ্যক্ষর নিয়ে গঠিত হয় ব্রিকস। এ জোটের প্রতিষ্ঠিত নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক বা এনডিবি।

এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে মঙ্গলবার এনডিবির প্রেসিডেন্ট মার্কোস প্রাদো ট্রয়জোরের ভার্চুয়াল সভায় অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই ব্যাংকের সদস্য হওয়ার জন্য আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব করে অর্থমন্ত্রী বলেন, এর জন্য যে সকল শর্ত রয়েছে, তার সবগুলোই বাংলাদেশ পূরণ করে।

এনডিবির প্রেসিডেন্ট মার্কোস প্রাদো অর্থমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করে বলেন, বাংলাদেশকে অবশ্যই সদস্য করা হবে। তবে সদস্য হওয়ার আগে কিছু প্রক্রিয়া রয়েছে। প্রক্রিয়া শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ সরকারকে বিষয়টি জানানো হবে।

সভা শেষে সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে এ কথা জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ‘আমরা নিউ ডেভলপমেন্ট ব্যাংকের সদস্য হওয়ার জন্য প্রেসিডেন্টকে বলেছি। বিষয়টি তিনি ইতিবাচকভাবে নিয়েছেন এবং আমাকে আশ্বস্ত করেছেন। আশা করছি, অচিরেই বাংলাদেশ এনডিবির সদস্যপদ অর্জন করতে পারবে।’

বর্তমানে বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ ও এডিবিসহ বহুজাতিক অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে কম সুদে ও সহজ শর্তে ঋণ নেয় বাংলাদেশ।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সদস্য হলে অথার্য়নের আরেকটি নতুন উৎস নিশ্চিত হবে। ফলে দেশে উন্নয়নের গতি আরও ত্বরান্বিত হবে।

তিনি জানান, এনডিবির প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করেন এবং বাংলাদেশর প্রস্তাব সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করেন।

এনডিবির প্রেসিডেন্ট শিগগিরই পরিবারসহ বাংলাদেশ সফর করবেন বলে জানান মুস্তফা কামাল। সভায় অর্থ বিভাগ, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ এবং এনডিবির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অংশ নেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত ১২ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভার্চুয়াল সভায় বাংলাদেশে ওই ব্যাংকে সদস্য হওয়ার আমন্ত্রণ জানান। এর পরিপ্রেক্ষিতে এনডিবি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনায় বসেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

অর্থমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, সভায় এনডিবিতে বাংলাদেশের ভূমিকা, নতুন ব্যাংকের ঋণের শর্তাবলীসহ বিনিয়োগ খাত এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট বিষয়সমূহ নিয়ে আলোচনা হয়।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের এক কর্মকর্তা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এনডিবির সদস্য হওয়ার লক্ষ্যে একটি কারিগরি কমিটি গঠন করা হবে। কমিটি এ বিষয়ে কাজ করবে।’

এনডিবির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ২০১৫ সালের ২১ জুলাই। ব্যাংকটির মোট মূলধন ১০ হাজার কোটি ডলার। প্রাথমিক মূলধন ৫ হাজার কোটি ডলার। ২০১৬ সাল থেকে এনডিবি অবকাঠামো এবং টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে ব্রিকসভুক্ত দেশে ঋণ বিতরণ করছে। এ পর্যন্ত ১৫০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া অবকাঠামো, সেচ, পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা, পয়ঃনিষ্কাশন, সবুজ জ্বালানি এবং নগর উন্নয়ন খাত সংশ্লিষ্ট প্রকল্প বাস্তবায়নে ঋণ দিয়ে থাকে ব্যাংকটি।

কোভিড-১৯ মহামারির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার লক্ষ্যে সদস্য রাষ্ট্রসমূহের কার্যক্রমে ব্যাংকটি অংশগ্রহণ করছে।

ইআরডির কর্মকর্তারা জানান, স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) কাতার থেকে উত্তরণের পর রেয়াতি হারে বহুপক্ষীয় ঋণদান সংস্থাগুলোর কাছে আর ঋণ সুবিধা পাওয়া যাবে না।

২০২৬ সালে এলডিসি থেকে বাংলাদেশের উত্তরণ হওয়ার কথা। তাই এনডিবির মতো বিকল্প উৎসকে ইতিবাচকভাবে দেখছে সরকার। বিশেষ করে বড় অবকাঠামো উন্নয়নে অনেক অর্থের প্রয়োজন।

বিআইডিএসের সাবেক ঊর্ধ্বতন গবেষণা পরিচালক জায়েদ বখত বলেন, ‘এনডিবিতে যোগদান বাংলাদেশের জন্য সার্বিক অর্থেই কল্যাণকর হবে। দেশের ভাবমূর্তিও বাড়বে।’

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –