ব্রেকিং:
রংপুরের নবীগঞ্জ এলাকায় বাসচাপায় অটোরিকশার চারযাত্রী নিহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
  • রোববার   ২৩ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১০ ১৪২৮

  • || ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
অপরাধ দমনে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে পুলিশ: প্রধানমন্ত্রী সততা ও নিষ্ঠার সাথে জনগণের সেবা নিশ্চিত করুন: রাষ্ট্রপতি আগামী ৫ বছরে বিশ্বের ৫০টি দেশে ডিজিটাল যন্ত্র রফতানি হবে দেশে শিল্পায়ন বাড়ানোর চেষ্টা চলছে: শিল্পমন্ত্রী কুড়িগ্রাম সদরে সোনালী ব্যাংক শাখার কর্মকর্তার মৃত্যু

পার্বতীপুরের যশাই রেলক্রসিংয়ে ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্ত শুরু

প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারি ২০২২  

দিনাজপুরের পার্বতীপুরের যশাই রেলক্রসিংয়ে বালুবোঝাই ডাম্প ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবিহীন দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে তদন্ত কমিটি। তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে কমিটিকে। এ ঘটনায় গেটম্যান মনিরুজ্জামানকে দায়িত্বে অবহেলার কারণে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

তবে ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক। অন্যদিকে দীর্ঘ প্রায় ১৩ ঘণ্টা পর বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে পার্বতীপুর-পঞ্চগড় রুটে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। এর আগে বুধবার (৫ জানুয়ারি) ভোর ৪টার দিকে পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর রেলওয়ে স্টেশনের অদূরে যশাই রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ওই ট্রেনের ইঞ্জিন ও চারটি বগি রেললাইনের পার্শ্ববর্তী ক্ষেতে উল্টে যায়। এতে ট্রেনের চালকসহ চারজন আহত হন।

এদিকে দুর্ঘটনার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে গঠিত তদন্ত কমিটি তদন্ত কাজ শুরু করেছে। তদন্ত কমিটির প্রধান ডিভিশনাল ট্রাফিক সুপার (লালমনিরহাট ডিভিশন) খালেকুন নেছা পপিসহ কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এসময় তদন্ত কমিটির প্রধান বলেন, ‘আমরা রেলওয়েসহ আশপাশের লোকজনের সঙ্গে কথা বলছি। ঘটনার কারণ অনুসন্ধ্যান করছি। কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপণ করতে কাজ করছি।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেলওয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘ভোরে দোলনচাঁপা ট্রেনটি যশাই রেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় রেলের গেটম্যান মনিরুজ্জামান সেখানে ছিলেন না। আব্দুল ওয়াহেদ নামের একজনকে তিনি দায়িত্ব দিয়েছিলেন। তিনিও সেখানে ছিলেন না। ফলে ট্রেনটি কেউ সিগন্যাল দেননি। ফলে চালক রেলগেটের লাইনের ওপর বিকল হয়ে পড়ে থাকা বালুবোঝাই ডাম্প ট্রাকটি কুয়াশার কারণে দেখতে পাননি। এতেই দুর্ঘটনা ঘটে। গেটম্যান থাকলে হয়তো এ দুর্ঘটনা ঘটতো না।’

যশাই গ্রামের রেজাউল করিম বলেন, ‘ভোর ৪টায় বিকট শব্দে ঘুম ভেঙে যায়। পরে দৌড়ে গিয়ে দেখেন ট্রেন ও ডাম্প ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষে ট্রেন ছিটকে পড়ে আছে। তবে যাত্রী না থাকায় তেমন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।’

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নির্বাচন শুরু হওয়ার পর থেকেই গেটম্যান মনিরুজ্জামান সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন না। প্রায় দিনই ট্রেন যাওয়ার সময় রেলগেটের বেরিয়ার ফেলা হতো না। এমনি এমনি ট্রেন পার হয়ে যেতো। তিনি রেলগেটের দায়িত্ব ছেড়ে নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত থাকতেন।

উদ্ধারকাজের নেতৃত্বে থাকা রেলওয়ের লালমনিরহাট ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার আহসান হাবিব জানান, উদ্ধারকাজ শেষে বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –