• মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৪

সর্বশেষ:
বিদ্যুৎ, জ্বালানি তেল ও গ্যাসের সাশ্রয়ী ব্যবহার নিশ্চিতের আহ্বান রাষ্ট্রপতির বাংলাদেশকে আরো ১৫ লাখ টিকা দিলো যুক্তরাষ্ট্র মালয়েশিয়ায় গেল বাংলাদেশি ৫৩ কর্মীর প্রথম ফ্লাইট অনেকটা নিরুপায় হয়েই জ্বালানির দাম সমন্বয় করেছে সরকার: জয় আওয়ামী লীগ বিএনপির ওপর কোনো অত্যাচার করেনি: তোফায়েল আহমেদ

বিরলে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিলেন গৃহবধূ

প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২২  

দিনাজপুরে একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। বৃহস্পতিবার (৯ জুন) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিজারিয়ানের মাধ্যমে ওই নবজাতকদের জন্ম হয়। সন্তানদের বাবা-মা বিরল উপজেলার মোতাপুকুর এলাকার শাহীন-শাবনূর দম্পতি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৬ সালে পারিবারিকভাবে শাহীন ও শাবনূরের বিয়ে হয়। শাহীন পেশায় একজন স্বর্ণকার। বিয়ের ছয় বছর পর একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্মের খবরে পরিবারের সবাই খুশি।

শাহীন বলেন, বিয়ের পর থেকেই সন্তান নেওয়ার জন্য চেষ্টা করে আসছিলাম। বিয়ের ছয় বছরে ডাক্তার, কবিরাজ, ওঝা কেউ বাদ পড়েনি। যে যা বলেছে সেটাই করেছি স্বামী-স্ত্রী মিলে। কিন্তু কোনো কিছুতেই যেন কিছু হচ্ছিল না। হতাশায় সন্তানের আশাও ছেড়ে দিয়েছিলাম।

তিনি বলেন, গতবছর থেকে এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগের অধ্যাপক ফয়সাল আলমের কাছে চিকিৎসা নিই। অবশেষে সন্তান হলো। আমার স্ত্রী ও সন্তানেরা সুস্থ আছে।

নবজাতকদের বাবা আরও বলেন, প্রসববেদনা শুরু হলে আজ ভোর ৪টার দিকে শাবনূরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিন সন্তানের মধ্যে দুজন ছেলে ও একজন মেয়ে। সত্যি আমরা খুব ভাগ্যবান। একসঙ্গে দুই ছেলে ও এক মেয়ে পেয়েছি।
শাবনূরের অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসক তাসনিম আয়েশা। 

তিনি বলেন, ৩৫ সপ্তাহের আগে সাধারণত অস্ত্রোপচার করা হয় না। কিন্তু প্রসূতির শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় ৩৪ সপ্তাহে শাবনূরের অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। তিন সন্তানের মধ্যে একজনের ওজন দুই কেজি, অপর দুজনের ওজন এক কেজি ৫০০ গ্রাম ও এক কেজি ২০০ গ্রাম। মা ও সন্তানেরা ভালো আছে। নবজাতকদের ইনকিউবেটরে রাখা হয়েছে।

শাবনূরের পাশে বসে আছেন নবজাতকদের নানি রমিছা বেগম। তিনি বলেন, একসঙ্গে তিন নাতি-নাতনি পেয়ে আমরা অনেক খুশি।

এদিকে, সন্ধ্যায় হাসাপাতালের শিশু ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, নবজাতকদের ইনকিউবেটর থেকে বের করে আলাদা রাখা হয়েছে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –