• বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ভারতের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের চেষ্টা ইসরায়েলি সংস্থার

প্রকাশিত: ১ জুন ২০২৪  

ভারতের চলছে ১৮তম লোকসভা নির্বাচন। শনিবার ৭ম এবং শেষ দফার ভোটগ্রহণ হচ্ছে। আর আগামী ৪ জুন ভোটের ফলাফল ঘোষণা করা হবে। তবে ফলাফল ঘোষণার মাত্র ৪ দিন আগে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলল কৃত্রিম বুদ্ধমত্তা ‘চ্যাট জিপিটি’র নির্মাতা সংস্থা ‘ওপেন এআই’। 

সংস্থাটির দাবি, কৃত্রিম বুদ্ধমত্তা বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সকে ব্যবহার করে একটি ইসরায়েলি সংস্থা ভারতের লোকসভা নির্বাচনে প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করছিল। তবে সেই চেষ্টা রুখে দিয়েছে ওপেন এআই। সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, জিরো জেনো নামের প্রচারণা চালিয়ে ভারতের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের চেষ্টা করে  ইসরায়েলের সংস্থা এসটিওআইসি। এতে বিজেপিকে বিরোধিতা করে ও কংগ্রেসকে সমর্থন করে যে সমস্ত কমেন্ট আসছে, সেগুলোকে প্রচার করার চেষ্টা করা হয়।

ওপেন এআইয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) স্যাম অল্টম্যান জানান, এ প্রচারণায় ওপেনএআই-এর শক্তিশালী ল্যাংগুয়েজ মডেলগুলো কাজে লাগিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের প্রোফাইল, আর্টিকেল ও কমেন্ট তৈরি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্ষমতাসীন বিজেপির সমালোচনা করা হয়েছে এবং কংগ্রেসের প্রশংসা করা হয়েছে।  

ওপেন এআই বলছে, ইসরায়েলি সংস্থার এই প্রচারণা রুখে দিয়েছে তারা। মে মাসে এই কর্মকাণ্ড নিয়ে সংস্থাটি কাজ শুরু করলে তা টের পায় ওপেন এআই। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রাজনৈতিক ফলাফলে প্রভাব ফেলতেই জনমতকে প্রভাবিত করতে এই গোপন প্রচারণা চলে।

ভারতের কেন্দ্রীয় ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা রাজীব চন্দ্রশেখর বলেছেন, এটা খুবই স্পষ্ট যে কিছু ভারতীয় রাজনৈতিক দল বা তাদের পক্ষ থেকে পরিচালিত ভুল তথ্য এবং বিদেশি হস্তক্ষেপের মাধ্যমে বিজেপিকে নিশানা করা হচ্ছে। যা দেশের গণতন্ত্রের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক।

রাজীব চন্দ্রশেখর আরও বলেন, ভারত ও দেশের বাইরে স্বার্থান্বেষী স্বার্থে এ ধরনের এজেন্ডা চালানো হচ্ছে। এটি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তদন্ত করা প্রয়োজন। এই মুহূর্তে আমার দৃষ্টিভঙ্গি হলো সামাজিক প্ল্যাটফর্মগুলো এটি আরও আগে প্রকাশ করতে পারত, এত দেরি নয় যখন নির্বাচন শেষ হচ্ছে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –