• মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

  • || ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫

শারীরিক আঘাতের অভিযোগে হাবিপ্রবিতে এক শিক্ষার্থী বহিষ্কার 

প্রকাশিত: ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) এক ছাত্রীকে শারীরিক আঘাতের অভিযোগে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী সাখাওয়াত হোসেন সোহাগকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৮ আগস্ট ২৩ ব্যাচের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন দায়িত্বরত শিক্ষকবৃন্দের সামনে আর্কিটেকচার বিভাগের শিক্ষার্থী মিমকে (ছদ্মনাম) টিএসসির সামনে অতর্কিতভাবে শারীরিক আঘাত করায় মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী সাখাওয়াত হোসেন সোহাগকে Ordinance of Student and Discipline এর ১৪ এবং ১৫ ধারা অনুযায়ী সংঘটিত অপরাধের দায়ে একাডেমিক কার্যক্রম এবং হল হতে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো যা ৩১ আগস্ট হতে কার্যকর বলে গণ্য হবে।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ভুক্তভোগী ঐ শিক্ষার্থী। সেখানে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। সেইসাথে নির্যাতনেরও অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) বেলা বারোটার দিকে টিএসসির সামনে ২০১৭ শিক্ষাবর্ষের যন্ত্রপ্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী সাখাওয়াৎ হোসেন সোহাগ তার মোটারবাইক দিয়ে ঐ নারী শিক্ষার্থীর পায়ে অযাচিতভাবে ধাক্কা দেয়। ঐ শিক্ষার্থী কথা বলতে গেলে এক পর্যায়ে সোহাগ ঐ নারী শিক্ষার্থীর গালে সজোরে আঘাত করে। পরে ঐ নারী শিক্ষার্থী তাকে কলার ধরে বাইক থেকে নামাতে গেলে অভিযুক্ত সোহাগ ওই শিক্ষার্থীর গায়ে হাত দেয় এবং এক পর্যায়ে পা ধরে মাটিতে ফেলে দেয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মামুনুর রশীদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপিড়ন সেলে বিষয়টি তদন্তাধীন আছে। সেখান থেকে চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –