• বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭

  • || ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
জনগণের সঙ্গে খারাপ আচরণের কোনো সুযোগ নেই: ড. বেনজীর খেয়াল-খুশি মতো রেট সিডিউল পরিবর্তন করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী বড় বড় দুর্নীতিবাজদের আইনের আওতায় আনতে হবে: হাইকোর্ট আগামী ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশে খেলতে আসবে উইন্ডিজ দল বিএনপির হাঁকডাক ফেসবুকে যত গর্জে, রাজপথে ততটা বর্ষে না

সন্ত্রাসীদের বিচার না করার ইনডেমনিটি দিয়েছে খালেদা-প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট ২০২০  

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে যত্রতত্র যেখানে-সেখানে মানুষকে ধরে নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী থেকে শুরু করে যুবলীগের কর্মী যাকে যেখানে পেয়েছে নিয়ে হত্যা করেছে। আর সেই হত্যার বিচার হবে না। সেই হত্যার বিচার হবে না, সেই ইনডেমনিটিও খালেদা জিয়া দিয়ে গেছেন। 

শেখ হাসিনা বলেন, জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার না করার ইনডেমনিটি দিয়েছে। তার স্ত্রী খালেদা জিয়া মানুষ হত্যা করা সন্ত্রাসীদের বিচার না করার ইনডেমনিটি দিয়েছে।

রবিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনাসভায় এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ আলোচনাসভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ২০০১-এর পহেলা অক্টোবরের নির্বাচন একটা প্রহসনের নির্বাচন। সেই নির্বাচনে ক্ষমতায় এসে বিএনপি মানুষ হত্যা শুরু করে। এক্সট্রা জুডিশিয়াল কিলিংয়ের কথা আজ সবাই বলে- সবাই ভুলে গেছে যে খালেদা জিয়া ক্ষমতায় আসার পর অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে বহু মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, খুলনায় আমাদের যুবলীগের মাসুম, শেখ হেলালের আপন মামাতো ভাই, তাকে যেভাবে অত্যাচার-নির্যাতন করেছিল, তাতে শেষে তার মৃত্যু হয়। এ রকম শত শত লোককে হত্যা করে তারা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন- আমাদের রিসার্চ সেন্টার দখল করে নেয়। ১৫টি কম্পিউটার, আমাদের বই, ৩০০ ফাইল, নগদ টাকা- সব কিছু লুট করে সিল করে দেয়। যেন আমরা সেখানে বসে কাজ করতে না পারি। একটি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড চালানোর পথ পর্যন্ত বন্ধ করে দিয়েছিল খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –