• বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সুস্বাদু পেয়ারার অসংখ্য গুণাগুণ

প্রকাশিত: ১৪ আগস্ট ২০২৩  

পেয়ারা খুবই সুস্বাদু একটি ফল। এই ফলটি পুষ্টির ভাণ্ডার। এটি খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হয়। পেয়ারাতে ভিটামিন-সি লাইকোপিন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। স্বাস্থ্যের পাশাপাশি এটি ত্বকের জন্যও উপকারী। পেয়ারায় থাকা পটাশিয়াম রক্তচাপের মাত্রা স্বাভাবিক করতেও সাহায্য করে। 

পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা জেনে নেয়া যাক-

পেয়ারা রোগ প্রতিরোধক

পেয়ারা ভিটামিন সি এর একটি সমৃদ্ধ উৎস। এটিতে কমলালেবুর চেয়ে ৪ গুণ বেশি ভিটামিন-সি পাওয়া যায়। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে।আপনি অনেক ধরনের সংক্রমণ এবং রোগ থেকে বাঁচতে পারেন। এছাড়াও পেয়ারা আপনার চোখকে সুস্থ রাখে।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী

পেয়ারায় পর্যাপ্ত পরিমাণে ফাইবার পাওয়া যায়। এর গ্লাইসেমিক ইনডেক্সও কম। এই ফলটি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য একটি ওষুধ। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। আপনি যদি ডায়াবেটিক রোগী হন, তাহলে অবশ্যই আপনার ডায়েটে পেয়ারা রাখুন।

খারাপ কোলেস্টেরল কম করে

পেয়ারা ট্রাইগ্লিসারাইড এবং খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতেও সাহায্য করে। যার মাধ্যমে আপনি হৃদ্‌রোগ এড়াতে পারবেন।

কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যায় কার্যকরী

অন্যান্য ফলের তুলনায় পেয়ারায় প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে, যা হজমে সাহায্য করে। আপনি যদি হজমের সমস্যায় অস্থির হয়ে থাকেন, তাহলে অবশ্যই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় পেয়ারা রাখুন।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

পেয়ারায় সোডিয়াম ও পটাশিয়াম পাওয়া যায়, যা উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের জন্য উপকারী বলে মনে করা হয়। এটি উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

গর্ভবতী মহিলাদের জন্য উপকারী

গর্ভবতী মহিলাদের জন্যও পেয়ারা খুবই উপকারী বলে মনে করা হয়। এতে থাকা ফলিক অ্যাসিড বা ভিটামিন বি-৯ গর্ভবতী মহিলাদের সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

দৃষ্টিশক্তি উন্নত করে

পেয়ারায় ভিটামিন-এ পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া যায়। যা চোখের জন্য অপরিহার্য উপাদান। এটি খেলে দৃষ্টিশক্তি ভালো হয়। এটি ছানি সমস্যা কমাতে সাহায্য করে।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –