• শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ২ ১৪২৮

  • || ০৮ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ দ্বিতীয় ডোজের আওতায় বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন খাঁটি পরিবেশ ও প্রকৃতিপ্রেমিক- পরিবেশমন্ত্রী `ঘরে ঘরে ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল পৌঁছে গেছে` মার্চ-এপ্রিলের মধ্যে ২৪ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন পাব: পররাষ্ট্রমন্ত্রী `স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর উৎসব পালিত হবে তৃণমূল পর্যন্ত`

হিলি স্থলবন্দরে সময় বাড়ানো হয়েছে আমদানি-রফতানির 

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ভারতের অভ্যন্তরে রফতানিমুখী পণ্যবোঝাই ট্রাকের জট সৃষ্টি হওয়ায় সেদেশের ব্যবসায়ীদের অনুরোধে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাড়ানো হয়েছে আমদানি-রফতানির সময়। ফলে বন্দরে বেড়েছে ভারতীয় পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশের সংখ্যা। ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের মাঝে ফিরেছে কর্মচাঞ্চল্য।পুরোদমে বাণিজ্য শুরু হওয়ায় খুশি আমদানিকারকরাও। 

জানা গেছে, করোনা মহামারির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সচল ছিল হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম। তবে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে কয়েক দফায় আমদানি-রফতানিকৃত পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যা কমিয়ে ৮০-১০০ করা হয়।  সেইসঙ্গে কমানো হয় সময়সীমাও। এতে করে ভারতের অভ্যন্তরে পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়েছে।
যানজট, পণ্য নষ্ট ও লোকসান এড়াতে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের চিঠি দিয়ে সময়সীমা বাড়ানোর অনুরোধ জানায় ভারতের ব্যবসায়ী। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বাড়ানো হয়েছে আমদানি-রফতানির সময়সীমা। প্রতিদিন এই বন্দর দিয়ে দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করছে।

হিলি স্থলবন্দরের শ্রমিক আব্দুর রহিম ও শফিক বলেন, করোনার ধকল কাটিয়ে আবারও আমাদের বন্দরে আমদানি-রফতানি বেড়েছে। আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য বেড়েছে। 

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, করোনার কারণে সরকারের নির্দেশনা মেনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে আমরা আমদানি-রফতানির সময়সীমা কমিয়ে ছিলাম। এতে করে প্রতিদিন এই বন্দরে ৮০ থেকে ১০০টি ট্রাক প্রবেশ করত। 

আবার সেই ট্রাকগুলো পণ্য খালাস করে একই দিন বিকেল ৫টায় ভারতে পাঠানো হতো। তবে সম্প্রতি ভারতের ব্যবসায়ীরা সময়সীমা বাড়ানোর জন্য আমাদের অনুরোধ করে চিঠি দিয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমরা আমদানি-রফতানির সময়সীমা বাড়িয়ে দিয়েছি। এখন এই বন্দরে দুইশ পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করছে।

হিলি পানামা পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রতাব মল্লিক বলেন, করোনার সংক্রমণ কিছুটা কমে যাওয়ায় হিলি স্থলবন্দরে আবারও আমদানি-রফতানি বেড়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্দরের অভ্যন্তরে আমরা সব ধরনের কাজ করে যাচ্ছি। 

হিলি কাস্টমসের তথ্য মতে, গেল ৭ কর্মদিবসে ভারত থেকে চাল, গম, ভুট্টা, পেঁয়াজ, পাথরসহ ৪০ হাজার ৬৪১ মেট্টিক টন বিভিন্ন পণ্য আমদানি হয়েছে এই বন্দর দিয়ে। যেখান থেকে সরকার রাজস্ব পেয়েছে ৬ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –