• রোববার ২১ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

পার্বতীপুরে অলৌকিক আগুন আতঙ্কে এলাকাবাসী

প্রকাশিত: ৫ জুন ২০২৪  

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে অলৌকিক এক আগুন এলাকাজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) রাতে পৌরশহরের পশ্চিম নিউ কলোনি ধুপিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত আগুনের কোনো সূত্রপাত পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, ঐ এলাকার ভ্যানচালক নুর ইসলাম নুরু। স্ত্রী সাবিয়া খাতুন, দুই ছেলে ও তিন মেয়ে নিয়ে তার ৭ সদস্যের পরিবার। সবাই মিলে একই বাড়িতে থাকেন। অবসর সময় স্ত্রীর সঙ্গে তাদের ছোট্ট খাবারের হোটেলে সময় দেন নুরু। গত তিনদিন আগে হঠাৎ দিনের বেলা তার বাড়ির টিনে অলৌকিক এক আগুন দেখতে পান। পরবর্তীতে তা নেভাতে সক্ষম হন। এরপর থেকে গত দুইদিনে খাট, সেলাই মেশিন, ঘরের উঠান, প্লাস্টিকের বস্তাসহ বাড়ির বিভিন্ন স্থানে অন্তত ৩০ বারের বেশি আগুনের দেখা মেলে।

এ ঘটনায় আগুন আতঙ্কে ক্ষতি থেকে রক্ষা পেতে বাড়ির কাপড়, তোশক, বালিসসহ বিভিন্ন মালামাল পার্শ্ববর্তী রায়েয়া খাতুনের বাড়িতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেও ঘটে বিপত্তি। বাড়ির এ মালামাল নিয়ে ঐ বাড়িতে যাওয়া হলে কিছুক্ষণ পর সেখানেও আগুন দেখা দেয়। শুধু তাই নয়, এ আগুন বাড়ি ছেড়ে সর্বশেষ নুরুর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান হোটেলেও দেখা যায়।

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়লে দূর-দূরান্ত থেকে আসতে শুরু করেন উৎসুক জনতা। তবে, এখন পর্যন্ত বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। রাত ১০টার দিকে আবারো বাড়িতে একটি ভেজা গামছায় আগুন লাগার ঘটনা দেখতে পান পরিবারের লোক। খবর পেয়ে পার্বতীপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন সংশ্লিষ্টরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নুরুর ছেলে ওসমান গনি সিয়াম (২৪) জানান, কয়েকদিন থেকে এ ঘটনা ঘটে চললেও সন্ধ্যার পর এর মাত্রা বেড়ে যায়। ছোট বোন শান্তা আকতার (১৭) ঘটনার পর থেকে অস্বাভাবিক আচরণ করছে। আগুন লাগার আগেই সে বলে দিচ্ছে। মুহূর্তেই সেখানে গিয়ে আগুন দেখতে পাচ্ছি আমরা। তবে, এর কারণ এখনো জানা যায়নি।

খবর পেয়ে দেখতে আসা স্থানীয় হামিদুর রহমান, হাফিজুল ইসলাম, শাকিল হোসেন বলেন, অলৌকিক আগুন লাগার ঘটনা শুনে দেখতে এসেছি। তবে ভেজা কাপড়ে আগুন লাগার ঘটনা সবাইকে চমকে দিচ্ছে। এর সঠিক কারণ না জানলেও অনেকে এ ঘটনাকে কুফরি কালাম জাতীয় কর্মকাণ্ড হিসেবে ধারণা করছেন।

ঘটনাস্থলে পরিদর্শনকারী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের তরিকুল ইসলাম নামে এক কর্মকর্তা জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে এসেছি। তবে, কি কারণে এমনটি হচ্ছে তা বলা যাচ্ছে না। দুর্ঘটনারোধে সবাইকে সচেতন থাকার পাশাপাশি পর্যাপ্ত পানি মজুত করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এর সূত্রপাত বের করতে কাজ করা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

– দিনাজপুর দর্পণ নিউজ ডেস্ক –